বুধবার | ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | শরৎকাল | বিকাল ৪:৫২ | রেজিঃ নং-

চন্দ্রগঞ্জে বাজারে মুক্তিযোদ্ধার কবর সহ সরকারের কোটি কোটি টাকার জমি প্রভাবশালীদের দখলে!

চন্দ্রগঞ্জ সংবাদদাতা-লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ বাজারে সরকারের কয়েক কোটি টাকার খাসজমি জবর দখল করে নিয়েছে একটি প্রভাবশালী চক্র। এ দখল থেকে বাদ যায়নি লাখ লাখ টাকা ব্যায়ে নির্মিত শত বছরের প্রাচীন সরকারি সেডগুলোও।

জানা যায় এ চক্রটি বাজারের সরকারি সেড ছাড়াও সরকারি খাস খতিয়ান ভুক্ত মুক্তিযোদ্ধা খাল, সড়ক ও জনপথ বিভাগের জমি, পানি উন্নয়ণ বোর্ডের জমি দখল করে স্থায়ী দোকান পাট নির্মাণ করে তাতে নিজে অথবা ভাড়া দিয়ে দিব্যি ব্যবসা বাণিজ্য করে যাচ্ছে। আবার কেউ কেউ উক্ত দখল হস্তান্তর করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। বছরের পর বছর ধরে এই দখল ও বাণিজ্য অব্যহত থাকলেও প্রশাসনের নীরব ভুমিকায় দখলদারদের নৈরাজ্য দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে জানা গেছে।

সড়ক ও জনপথ, পানি উন্নয়ণ বোর্ড ও সরকারি খাস জমি একের পর এক স্থায়ী ভাবে দখল করে নেওয়ায় বর্তমানে এ বাজারে আগত ক্রেতা বিক্রেতাদের জন্য সরকারি ভাবে গণশৌচাগার নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হলেও স্থানের অভাবে তা বাস্তবায়ণ করা সম্ভব হয়না বলে জানা গেছে। ফলে এ বাজারে আগত ক্রেতা বিক্রেতা এবং বিভিন্ন গন্তব্যে যাতায়াত কারি যাত্রী সাধারণ চরম দূর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে বলে জান াগেছে। শুধু তাই নয় অবৈধ দখলের কারণে এ বাজারে আগুন লাগলেও খাল বা পুকুর থেকে পানি নিয়ে আগুন নিভানো যায়না বলে জানিয়েছেন সাধারণ ব্যবসায়িরা।

সম্প্রতি চন্দ্রগঞ্জ পশ্চিম বাজারে অগ্নীকান্ডের ঘটনা ঘটলে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ী দ্রুত ঘটনাস্থলে এসেও স্থানের অভাবে খাল থেকে পানি তুলতে পারেনি। প্রায় আধা ঘন্টা চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রতাপ গঞ্জ স্কুলের গেইটের তালা ভেঙ্গে পুকুর থেকে পানি নিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। আর এ সময়ের মধ্যে অধিকাংশ দোকান পুড়ে যায়। অথচ আগুন লাগা দোকান গুলো বাজারের পাশদিয়ে বয়ে যাওয়া মহেন্দ্র খালের উপরই নির্মাণ করা হয়েছিল। পুড়ে যাওয়া দোকন গুলো আবারো একই কায়দায় অবৈধ ভাবে নির্মাণ করে ভাড়া ও ব্যবসার কাজ চলতে দেখা গেছে।

তথ্য অনুসন্ধান কালে জানাযায়, গত ৫/৬ বছর আগে একবার এই বাজারের সরকারি জমি গুলো অবৈধ দখল উচ্ছেদ করা হলেও পরবতীতে আবারো তা আগের ন্যায় দখল করে নেওয়া হয়। সম্প্রতি চন্দ্রগঞ্জ বাজারের মাংশ দোকান এলাকায় সড়ক বিভাগের জমিতে দখল করে গড়ে তোলা একটি দোকান ঘর ৪০ লাখ টাকায় হস্তান্ত করা হয় বলে জানা গেছে। এ ছাড়া সম্প্রতি চন্দ্রগঞ্জ বড় পোল এর পশ্চিম পার্শ্বে সড়ক ও পানি উন্নয়ণ বোর্ডের জমি দখল করে স্থানীয় এক প্রভাবশালী নেতা স্থায়ী ভাবে পাকা ঘর নির্মাণ করে দখলে নিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, লক্ষ্মীপুর নোয়াখালীর আঞ্চলিক মহাসড়কের দক্ষিণ পার্শ্ব চন্দ্রগঞ্জ বাজার এলাকায় সরকারি খাস জমিতে ঝুপড়ি ঘর তুলে বসবাস করতে থাকা বেদে পরিবার ও চিহ্নমুল মানুষদের ভয় ভীতি প্রদর্শন করে উচ্ছেদ করে সে সব জমি দখল করে নিয়েছে প্রভাবশালীরা। তাদের দখল থেকে মুক্তি পায়নি স্বাধীনতা যুদ্ধের বীর সৈনিক মুক্তযোদ্ধা নুরা মামু ও তার স্ত্রীর কবরও।

স্থানীয় সূত্রে আরো জানা যায়, সরকারি এই খাস জমি দখলকারি ১৫০ জন মিলে নিজেদের রক্ষায় চন্দ্রগঞ্জ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ি সমিতি নামে ভুঁইপোড় একটি সংগঠন গড়ে তুলে সংঘবদ্ধ হন প্রভাবশালী চক্রটি। তারা উচ্ছেদ অভিযান ঠেকাতে প্রতিটি দখলদার এ সমিতিতে ৫ হাজার টাকা করে একটি ফান্ড তৈরী করেন লক্ষ্মীপুরের সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে ম্যানেজ করা জন্য।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এই এলাকায় ক্ষমতাসীন ও বিরোধী দলের সম্পর্ক সাপে নেউলে হলেও সরকারি জমি জবর দখলে তাদের মধ্যে এ বিষয়ে যেন সখ্যতার কোন কমতি নেই। দখলে পিছিয়ে নেই বাজার কমিটির নেতৃবৃন্দ।

Comments are closed.



সম্পাদক ও প্রকাশক:

মোঃ সহিদুল ইসলাম (সহিদ)

প্রধান কার্যালয়ঃ

বার্তা বিভাগঃ এস,এ পরিবহনের পিছনে
উত্তর তেমুহনী বাসষ্ট্যান্ড, সদর, লক্ষ্মীপুর।

সম্পাদকীয়ঃ বিআরডিবি ওয়ার্কশফ ভবন
বাগবাড়ী, সদর, লক্ষ্মীপুর।

ই-মেইলঃ newsdailyrob@gmail.com, মোবাইলঃ 01712256555, 01620759129

Copyright © 2016 All rights reserved www.rnb24.com

Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com