রায়পুরে মোঃ অালী খোকন সহ নেতাদের কটাক্ষ করে বক্তব্য: বেকায়দায় ইউপি চেয়ারম্যান, বিক্ষোভ মিছিল

রায়পুর সংবাদদাতা-
রায়পুর সংবাদদাতা- রায়পুর সংবাদদাতা-
প্রকাশিত: ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন, ১৩ মে ২০২৪ | আপডেট: ৬:৫০ পূর্বাহ্ন, ২৩ জুন ২০২৪

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের দক্ষিন চরবংশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সালেহ মোঃ মিন্টু ফরায়েজির বিরুদ্ধে স্থানীয়রা বিক্ষোভ সহ জুতারমালা পরিহিত ছবি সংবলিত ব্যানার নিয়ে মিছিল ও কুশপুত্তলিকাদাহ করেছে। রোববার রাতে সুশীল সমাজের আয়োজনে এ বিক্ষোভ মিছিল করা হয়েছে। বিক্ষোভ মিছিলটি উপজেলার প্রধান-প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে রায়পুর শহরের ট্রাফিক মোড়ে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 বিটিএম এর সভাপতি, শিল্পপতি , শিক্ষানুরাগী মোহাম্মদ আলী খোকন ও এডভোকেট মিজানুর রহমান মুন্সির বিরুদ্ধে নির্বাচনি উঠান বৈঠকে চেয়ারম্যান তাদের কটাক্ষ করে কুরুচিপুর্ণ বক্তব্য দেয়ার প্রতিবাদে এ বিক্ষোভের আয়োজন হয় বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দুই প্রার্থীর নেতা-কর্মীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ, উত্তেজনা চলছে। ফলে এ নিয়ে বেশ বেকায়দায় পড়েছেন চেয়ারম্যান আবু সালেহ মোঃ মিন্টু ফরায়েজি। 

পরে বিষয়টি নিয়ে পথসভায় বক্তব্য রাখেন, রায়পুর পৌরসভার ৭ নাম্বার কাউন্সিলর শিশির পাঠান, পৌর আ’লীগ নেতা জহির পাটোয়ারী, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক নাজমুল আহসান রিপন, তাঁতীলীগের আহবায়ক শিবলু ভাট, মোঃ কাকন, ছাত্রলীগ নেতা শরীফ হোসেন, যুবলীগ নেতা মোঃ জুটন ও আবদুল গনিসহ ৭০-৮০ জন নেতাকর্মী। পরে মিছিলটি ট্রাফিক মোড়ে সামনে এসে দক্ষিন চরবংশী ইউপি চেয়ারম্যান আবু জাফর মোঃ সালেহ মিন্টু ফরায়েজি কুশপুত্তলিকাদাহ করা হয়।

মিন্টু ফরায়েজি আসন্ন ২১ মে দ্বিতীয় দফায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোটরসাইকেল প্রতিকের প্রার্থী মাস্টার আলতাফ হোসেনের নির্বাচনে সমন্বকারি হিসেবে কাজ করছেন। বিটিএম এর সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন আনারস প্রতীকের প্রার্থী ও উপজেলা আ’লীগ এর সভাপতি অধ্যক্ষ মামুনুর রশীদের পক্ষের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির দায়িত্বে রয়েছেন।

উল্লেখ্য, শুক্রবার দুপুরে জুমার নামাজের পর চেয়ারম্যান প্রার্থী আলতাফ হোসেন হাওলাদারের সমর্থনে দক্ষিন চরবংশী ইউপির ১ নম্বর ওয়ার্ডে মাঝি বাড়ীর মসজিদের সামনে ইউপি চেয়ারম্যান মিন্টু ফরায়েজির উদ্যোগে উঠান বৈঠক করা হয়। সেখানে মিন্টু ফরায়েজি তার বক্তব্যে বলেন, দক্ষিন চরবংশী ইউনিয়নে বিটিএমের সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকনকে অবাঞ্চিত ঘোষনা করেন। মোহাম্মদ আলী খোকন একজন প্রতারক ও ঠকবাজ বলে অভিহিত করেন। তিনি আ’লীগ-নেতাদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করে রেখেছেনবিলে দাবী তার। 

অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যক্ষ মামুনুর রশীদের পরিবারকে রাজাকার আখ্যায়িতসহ বিভিন্ন বাজে মন্তব্য করে উপজেলার পশ্চিমাঞ্চল ও পূর্বাঞ্চল নেতা কর্মীদের মাঝে বিবেদ সৃষ্টি করে রেখেছেন। এখন অপর প্রার্থী মামুনুর রশীদের পরিবারকেই বিভিন্ন গুনে গুনান্নিত করছেন। তার সম্পদের হিসাব নিতে দুদকের কাছে আহবান জানান ও তিনি।