রায়পুরে আতংক এমপি নয়ন : নির্বাচনে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ

বিশেষ সংবাদদাতা-
বিশেষ সংবাদদাতা- বিশেষ সংবাদদাতা-
প্রকাশিত: ১১:২৯ পূর্বাহ্ন, ২০ মে ২০২৪ | আপডেট: ৮:১৮ পূর্বাহ্ন, ২৩ জুন ২০২৪

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের আতংক সংসদ সদস্য এ্যাড.নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন। এমন অভিযোগ করেছেন খোদ তারই নিকটাত্নীয় সাবেক পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ইসমাইল হোসেন খোকন। নয়ন লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর ও সদরের একাংশ) আসনের সংসদ সদস্য।

 তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, রায়পুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী, ভগ্নিপতি মামুনুর রশিদকে (আনারস)  নির্বাচনে  তাকে জেতাতে টিআর-কাবিখা প্রকল্পের লোভ দেখানো সহ প্রভাব বিস্তারের করছেন তিনি। এছাড়া যুবলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ আলী খোকন ও রায়পুর পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক কাজী জামশেদ কবীর বাকি বিল্লাহ আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে আনারস প্রতীকের পক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে নিয়ে অশ্লীল ভাষায় বক্তব্য ও হুমকি দিয়ে আসছেন তারা।

এদিকে, এমপি নয়নের প্রভাব বিস্তার, মোহাম্মদ আলী খোকন ও বাকি বিল্লাহর আচরণ বিধি লঙ্ঘন নিয়ে প্রশাসনের কাছে অভিযোগ দিলেও কোন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না বলেও জানান চেয়ারম্যান প্রার্থী আলতাফ হোসেন হাওলাদার (মোটরসাইকেল)।

রবিবার  ১১টার দিকে সংবাদ সম্মেলন করে মোটরসাইকেল প্রতিক প্রার্থী আলতাফ এ অভিযোগ করেন। তার নির্বাচনী প্রধান সমন্বয়ক ও রায়পুর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সহ-সভাপতি ইসমাইল হোসেন খোকনের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে এ আয়োজন করা হয়। এ সময় ইসমাইল হোসেন খোকন নিজেও উপস্থিত থেকে এ আতংকের কথা জানান।

সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আলতাফ হোসেন হাওলাদার বলেন, আচরণবিধি লঙ্ঘন করে এমপি নয়ন সারাসরি নির্বাচনে প্রভাব বিস্তার করছেন। বাড়ি বাড়ি গিয়ে আমার কর্মীদের টিআর-কাবিখার লোভ দেখিয়ে ও হুমকি ধমকি দিয়ে তাদের পক্ষে 'ম্যানেজ' করে নিচ্ছেন। যুবলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ আলী খোকন ঢাকার গুলশান এলাকার ভোটার।

বহিরাগত ভোটার হয়ে তিনি আনারস প্রতীকের প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন। আমাকে ও আমার কর্মীদের নামে অশ্লীল ভাষায় বক্তব্য রাখছেন। আওয়ামী লীগ নেতা কাজী জামশেদ কবীর বাকী বিল্লাহ আমাকে নিয়ে অশ্লীল বাক্য ব্যবহার করে বক্তব্য দিয়ে আসছেন। যা স্পষ্ট নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন। খোকন ও বাকী বিল্লাহ আমিসহ আমার নির্বাচনী সমন্বয়ক দক্ষিণ চরবংশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু ছালেহ মো. মিন্টু ফরায়েজীকে নিয়ে অশ্লীল বাক্যে বক্তব্য দিচ্ছে। তারা কেউই নির্বাচনী আচরণ বিধির তোয়াক্কা করে না।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আলতাফ আরও বলেন, এমপি নয়ন তার ভগ্নিপতি মামুনুর রশিদের পক্ষে প্রভাব বিস্তার করছেন। আমার কর্মীদেরকে হুমকি ধমকি দিচ্ছেন। এতে আমার নেতাকর্মীরা ভীত হয়ে পড়েছে। মোহাম্মদ আলী খোকন আমার কর্মীদের ডেকে নিয়ে বিভিন্ন ধরণের হুমকি দিচ্ছে। এতে নির্বাচনের দিন সুষ্ঠুভোট নিয়ে শঙ্কা রয়েছে। এসব নিয়ে অভিযোগ দেওয়ার পরও প্রশাসন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর লোকজনের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

আলতাফের প্রধান নির্বাচনী সমন্বয়ক ইসমাইল হোসেন খোকন বলেন, নির্বাচন নিয়ে প্রশাসন নিরপেক্ষ রয়েছে। কিন্তু এমপি নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন হুমকি দিচ্ছেন-প্রশাসন যা দেখাচ্ছে তা আজ কিংবা কাল রাত বন্ধ হয়ে যাবে। উনার কথার বাইরে কোন প্রশাসন থাকবে না। তিনি তার বাহিনী দিয়ে ভোট নিয়ে যাবে এবং ভোট সুষ্ঠু হতে দেবে না। আমাদের নেতাকর্মীদের রাতের অন্ধকারে ধরে নিয়ে যাচ্ছে। তাদেরকে টিআর কাবিখার প্রজেক্ট দিচ্ছে। এছাড়া এমপি বলছেন- তার কথা না শুনলে মৃত্যুবরণ করতে হবে এবং দেশ ছাড়তে হবে। এ অবস্থায় সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা রয়েছে। 

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ নেতা কাজী জামশেদ কবির বাকি বিল্লাহ বলেন, মোটরসাইকেল প্রতীকের লোকজন আচরণবিধি লঙ্ঘন শুরু করেছেন। মিন্টু ফরায়েজী তার বক্তব্যে খোকন ভাইকে নিয়ে অশ্লীল বাক্য ব্যবহার করেন। এতে আমাদের নেতাকর্মীরা যেন ঝিমিয়ে না যায় সেজন্য মনোবল বাড়াতে আমরা বিভিন্ন ধরণের বক্তব্য রাখছি। এটি রাজনৈতিক কৌশল।

নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট প্রিয়াংকা দত্ত বলেন, নির্বাচনে এমপি নয়নের প্রভাব বিস্তার নিয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি। মোটরসাইকেলের কর্মীদেরকে হুমকি বা অশ্লীল ভাষা ব্যবহার নিয়েও কোনো অভিযোগ দেওয়া হয়নি। অভিযোগ পেলে আচরণ বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মোহাম্মদ আলী খোকন যেখানেরই ভোটার হন উপজেলা নির্বাচনে প্রচারণা চালাতে কোনো সমস্যা নেই।

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে আমি কোন কথা বলব ন। যে যাই বলুক তা নিয়ে নির্বাচনের পরে কথা বলব। যেহেতু আমি নির্বাচনী প্রচারণায় নেই। সেহেতু কোন বক্তব্য দেওয়ারও সুযোগ নেই।’ ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলায় ২১ মে ভোট হবে।